‘করোনাকালে ঈদে ঘুরাঘুরি নয়, ঘরেই থাকুন’

ফরিদ উদ্দিন আহমেদ

অনলাইন ২৩ মে ২০২০, শনিবার, ৯:২০

ঈদে করোনার ঝুঁকি বাড়বে। শহর থেকে গ্রামে সংক্রমণ ছড়াবার সম্ভাবনা রয়েছে বেশি। ব্যক্তিগত বাহনে ঈদযাত্রার কারণে এটা ঘটবে। এবারের ঈদ করোনাকালের মধ্যে হচ্ছে। এটা কোন স্বাভাবিক সময় নয়। তাই মানুষের বাড়িতে না যাওয়াই ভালো ছিলো। এ রোগ একজন থেকে আরেকজনে ছড়ায়। সবাই ঘরে থাকুন।
যারা শহরে আছেন, ঘোরাফেরা করবেন না। করোনাকালে ঈদ উৎসব নিয়ে মানবজমিনের সঙ্গে আলাপকালে দেশের বিশিষ্ট মেডিসিন বিশেষজ্ঞ, প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিসিন অনুষদের সাবেক ডিন অধ্যাপক ডা. এবিএম আব্দুল্লাহ এসব কথা বলেন।

আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন এ মেডিসিন বিশেষজ্ঞ সবাইকে নিজ নিজ অবস্থানে থেকে ঈদুল ফিতর উদযাপন করতে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ যাতে আরও ছড়িয়ে না পড়ে এবং দেশের মানুষের সার্বিক নিরাপত্তা বিবেচনায় নিয়ে এ বছর নিয়ন্ত্রিতভাবে ঈদ করার অনুরোধ জানান তিনি।

অধ্যাপক ডা. আব্দুল্লাহ বলেন, জাঁকজমক করে ঈদ করার চেয়ে জীবনটা বড়। বেঁচে থাকলে উৎসব করে ঈদ আবার করা যাবে। কিন্তু ঈদ করতে গিয়ে যেন জীবন ঝুঁকিতে না পড়ে সেদিকে সবার নজর দিতে হবে।

তিনি আরো বলেন, শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। ঈদের নামাজের যেন আমরা কোলাকুলি না করি। সেদিকে নজর রাখতে হবে। একুশে পদকপ্রাপ্ত এই অধ্যাপক আরো বলেন, এখন মহামারি পরিস্থিতি বিরাজ করছে। এটা মানুষকে বুঝতে হবে। প্রতিদিনই করোনার সংক্রমণ বাড়ছে। তাই মানুষকে সামাজিক দূরত্ব বজায় বাখতে হবে। খাওয়া-দাওয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সাবধানে খাওয়া দাওনা করবেন। ভিটামিন সি যুক্ত খাবার বেশি খাবেন। অল্প অল্প করে খাবেন। এক সঙ্গে বেশি খাবেন না।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

SJ

২০২০-০৫-২৪ ০১:৫৭:৩৬

জামেলা মুক্ত যাহারা থাকিতে চেষ্টা করিবে তাহারাই আধিক ঝুকিমুক্ত । আতি উল্লাস আধিক ঝুকিতে ফেলে যাহা আনেকেই দেখিতে পায় না ।

তপু

২০২০-০৫-২৩ ০৯:৩৬:৫১

ঈদের ছুটিতে কারফিউ বা ১৪৪ ধারা জারি করলে কী ক্ষতি হতো?

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত



গণস্বাস্থ্যের কিটে পরীক্ষা

করোনায় আক্রান্ত ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী