তারকা যখন ঘরে

বেশির ভাগ সময় আমি ফ্রিহ্যান্ড এক্সারসাইজ করছি- আরিফিন শুভ

স্টাফ রিপোর্টার

বিনোদন ১৮ মে ২০২০, সোমবার | সর্বশেষ আপডেট: ৯:৪৪

চিত্রনায়ক আরিফিন শুভ। মার্চ মাসের মাঝামাঝি সময় থেকে তিনি ঘরবন্দি হয়ে আছেন সবার মতো। লকডাউনের আগে সর্বশেষ আরব আমিরাতের দুবাইতে অপ্পো ফোনের একটি টিভিসির শুটিংয়ে অংশ নেন তিনি। করোনার আগে এটাই ছিল তার শেষ কাজ। ঘরবন্দি এই সময় শুভর কিভাবে কাটছে? তিনি বলেন, এখন বেশির ভাগ সময় আমি ফ্রিহ্যান্ড এক্সারসাইজ করছি। মাঝেমধ্যে বই পড়ছি। কখনোবা সিরিজ দেখছি। আর বাগানও করি।
ঘর থেকে যেহেতু বাইরে বের হতে পারছি না, তাই পরিবারকেই বেশি সময় দেওয়া হচ্ছে। এ ছাড়া বন্ধু-বান্ধব ও আত্মীয়স্বজনের সঙ্গেও ফোনে কথা বলছি। করোনা মহামারী প্রসঙ্গে তিনি বলেন, জীবন বোধের জায়গা নিয়ে কিছু পরিবর্তন হওয়া দরকার বলে মনে করি। আর আমরা যারা বেঁচে আছি অর্থাৎ এখন পর্যন্ত যাদের এই রোগটি হয়নি এটাই তো অনেক বড় ব্যাপার। এ সময়ে মানুষ মানুষের প্রতি যে ভালোবাসা দিয়ে যাচ্ছে এটা আসলেই অনেক বড় একটা পরিচয়। সবকিছুরই পরিবর্তন হয়, এই প্রাকৃৃতিক বিপর্যয় অনেক কিছু বদলে দিয়েছে। শুভ অভিনীত সর্বশেষ সিনেমা গোলাম সোহরাব দোদুল পরিচালিত ‘সাপলডু’। এদিকে সম্প্রতি রিলিজ পেয়েছে তার ‘মৃত্যুপুরী’ সিনেমার প্রথম ঝলক। এ বিষয়ে শুভ বলেন, এটা নিয়ে বেশি কিছু জানি না। ‘মৃতুপুরী’ সিনেমার কাজ হয়েছে চার-পাঁচ বছর আগে। এরপর আর প্রযোজনা সংস্থা তেমন আপডেট জানায়নি। নতুন চলচ্চিত্র নিয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, কিছু সিনেমার কাজ শেষ। সেগুলো কবে মুক্তি পাবে তা জানি না। নতুন সিনেমাও আছে হাতে। এর মধ্যে একটা সিনেমার কাজ চলতি মাসে শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু এটা পিছিয়ে গেছে। আসলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হলে কোনো কিছুই ঠিক করে বলা সম্ভব হচ্ছে না। করোনায় চলচ্চিত্রে কি ধরনের পরিবর্তন নিয়ে আসবে তা নিয়েও কথা বলেন এই তারকা। করোনার কারণে সিনেমায় নেতিবাচক প্রভাবকে ইতিবাচকভাবে দেখছেন বলে তিনি মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, আমি মনে করি, করোনার নেতিবাচক প্রভাবটা সিনেমার জন্য ভালো হবে। আমি চাই সিনেমায় যে জরাজীর্ণতা আছে সেটা একেবারে শেষ হয়ে যাক। একেবারে সব শেষ হলে আবার নতুন করে সববিছু জন্মাবে। করোনার আগে আমরা না এদিকে ছিলাম, না ওদিকে। আমার মনে হয় করোনার পর সিনেমা আরো ভালোর দিকে যাবে। পুরো ইন্ডাস্ট্রি নতুন করে জন্ম নেবে।

আপনার মতামত দিন



বিনোদন সর্বাধিক পঠিত