গৃহবধূর চুল কর্তন: উল্লাপাড়া আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে কী অ্যাকশন নেয়া হয়েছে, জানতে চান হাইকোর্ট

স্টাফ রিপোর্টার

দেশ বিদেশ ৯ ডিসেম্বর ২০১৯, সোমবার | সর্বশেষ আপডেট: ৩:১৬

মিথ্যা অপবাদ দিয়ে সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় দুই সন্তানের জননী গৃহবধূর চুল কাটার ঘটনায় স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুর রশিদের বিরুদ্ধে কী অ্যাকশন নেয়া হয়েছে তা জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট। সিরাজগঞ্জের ডিসি, এসপি ও উল্লাপাড়া থানার ওসির সঙ্গে যোগাযোগ করে আগামী ১১ই ডিসেম্বরের মধ্যে সংশ্লিষ্ট কোর্টের ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ব্যারিস্টার আবদুল্লাহ আল মাহমুদ বাশারকে এ বিষয়ে জানাতে বলা হয়েছে। গতকাল বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চে পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদন নজরে আনার পর স্বপ্রণোদিত হয়ে এই আদেশ দেন। বিষয়টি আদালতের নজরে আনেন অ্যাডভোকেট ইশরাত হাসান। অভিযুক্ত ব্যক্তি উপজেলার উধুনিয়া ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি। গত ২৫ শে নভেম্বর রাতে চাঞ্চল্যকর এ ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূ নিজেই বাদী হয়ে ২রা ডিসেম্বর উল্লাপাড়া মডেল থানায় ওই আওয়ামী লীগ নেতা ও তার চার সহযোগীর বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। অপর আসামিরা হলেন-গজাইল গ্রামের মোজাহারের ছেলে মুনসুর (৩৮), বাহের প্রামাণিকের ছেলে আব্দুস সালাম (৪৫), নাসির উদ্দিন (৪০) ও শহিদুল ইসলাম (৩২)।
ওই নারীর অভিযোগ, ২৫শে নভেম্বর সন্ধ্যায় তিনি তার এক আত্মীয়র বাড়িতে বেড়াতে যাওয়ার জন্য ভাড়ায়চালিত মোটরসাইকেলের খোঁজে বের হন। পথিমধ্যে একই গ্রামের মৃত আবেদ আলীর ছেলে সাইফুল ইসলামের বাড়ির পাশে উধুনিয়া ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ও গজাইল গ্রামের মৃত বেলায়েত সরকারের ছেলে মো. আব্দুর রশিদ ও তার চার সহযোগী তার পথরোধ করেন। সাইফুল ইসলামের সঙ্গে তাকে আপত্তিকর অবস্থায় আটক করা হয়েছে বলে চিৎকার-চেঁচামেচি শুরু করেন তারা। এতে গ্রামের লোকজন ছুটে এলে তাদের সামনে তাকে বিবস্ত্র করে মারপিট করা হয়। পরে কয়েকশ লোকের সামনে মাছকাঁটা বটি দিয়ে তার মাথার চুল কেটে দেয়া হয়। নির্যাতিতা গৃহবধূ জানান, আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুর রশিদ দীর্ঘদিন ধরে তাকে নানাভাবে কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন। এতে তিনি রাজি না হওয়ায় এবং তার বাড়ির ডিস সংযোগ বারবার বিচ্ছিন্ন করে দেয়া নিয়ে তার সঙ্গে পূর্ব বিরোধের জের ধরে তিনি এ ঘটনাটি ঘটিয়েছেন।

আপনার মতামত দিন

দেশ বিদেশ অন্যান্য খবর

গার্ডিয়ানের সমপাদকীয়

আজীবন ক্ষমতার পথে পুতিন

১৮ জানুয়ারি ২০২০

রাজধানীতে রেজিস্ট্রেশন কমপ্লেক্সে চুরি, সন্দেহের তালিকায় ভূমিখেঁকো চক্র

১৮ জানুয়ারি ২০২০

রাজধানীর তেজগাঁওয়ে রেজিস্ট্রেশন কমপ্লেক্সে রহস্যজনক চুরির ঘটনায় ভূমিখেঁকো চক্রকে সন্দেহের মধ্যে রেখেছে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী। ...

অরক্ষিতই রয়ে গেল জবি’র দ্বিতীয় ফটক

১৮ জানুয়ারি ২০২০

 জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) শিক্ষার্থীদের দীর্ঘ আন্দোলনের পর ক্যাম্পাসের দ্বিতীয় ফটক অবৈধ দখল মুক্ত হলেও এখনো ...

ফাইভ-জি’র অভিজ্ঞতা নিতে দর্শনার্থীদের উপচে পড়া ভিড়

১৮ জানুয়ারি ২০২০

দেশে প্রথমবারের মতো আয়োজিত ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ মেলা’র দ্বিতীয় দিনে দর্শনার্থীদের উপচে পড়া ভিড়। আর এর ...

ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ১১২ জনের মৃত্যু

২ মাস সময় চায় তদন্ত কমিটি

১৮ জানুয়ারি ২০২০

রাজধানীতে ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়া নির্মূলে সংশ্লিষ্টদের ব্যর্থতার কারণ এবং দায়ীদের চিহ্নিতে গঠিত বিচার বিভাগীয় তদন্ত ...

ডয়েচে ভেলের প্রতিবেদন

কাশ্মীরে গণভোট দিতে তৈরি পাকিস্তান- ইমরান খান

১৮ জানুয়ারি ২০২০

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের বাসিন্দারা কি পাকিস্তানের সঙ্গে থাকতে চান, নাকি ...

‘দেশি গণমাধ্যম খালেদার অসুস্থতা নিয়ে সম্পূর্ণ সংবাদ পরিবেশন করতে পারছে না’

১৮ জানুয়ারি ২০২০

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, সরকার বেগম খালেদা জিয়ার অসুস্থতাকে খাটো করে ...

সীমান্ত এলাকার লজ থেকে বাংলাদেশি নারীর লাশ উদ্ধার

১৮ জানুয়ারি ২০২০

ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী উত্তর ২৪ পরগনা জেলার বনগাঁর একটি লজ থেকে এক বাংলাদেশি নারীর লাশ উদ্ধার ...

সূর্যসেনের স্মৃতি বিজড়িত পাহাড়টিও কেটে ফেলছে দুর্বৃত্তরা

১৮ জানুয়ারি ২০২০

 চট্টগ্রামের পাহাড়গুলো যেন অনেকের শত্রু। এরমধ্যে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (চউক), সড়ক ও জনপথ বিভাগ (সওজ), ...

এমপি রিমনের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার মামলা

১৮ জানুয়ারি ২০২০

বরগুনা-২ (বামনা-পাথরঘাটা-বেতাগী) আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য শওকত হাচানুর রহমান রিমনসহ ১৩ জনের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার ...

তোফাজ্জল হত্যার লোমহর্ষক বর্ণনা দিলেন ঘাতক দাদা

১৭ জানুয়ারি ২০২০

তাহিরপুরে শিশু তোফাজ্জলকে হত্যার দায় স্বীকার করেছে তার দাদার ফুফাতো ভাই (সম্পর্কে তোফাজ্জলের দাদা) রাসেল ...





দেশ বিদেশ সর্বাধিক পঠিত



গার্ডিয়ানের সমপাদকীয়

আজীবন ক্ষমতার পথে পুতিন

ভর্তি জালিয়াতি ও অস্ত্রবাজি

৬৭ শিক্ষার্থীকে স্থায়ী বহিষ্কার করলো ঢাবি

গোলটেবিল আলোচনায় বক্তারা

ইভিএমে কোনো সৎ উদ্দেশ্য নেই