এজলাসে হট্টগোল আদালত অবমাননা

স্টাফ রিপোর্টার

প্রথম পাতা ৬ ডিসেম্বর ২০১৯, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ২:৫৯

অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেছেন, প্রধান বিচারপতির এজলাসে বিএনপিপন্থি আইনজীবীরা যেভাবে হট্টগোল করেছেন, তা রীতিমতো আদালত অবমাননা। জামিন শুনানি পেছানোর পর এজলাস কক্ষে হট্টগোলের প্রেক্ষিতে দুপুরে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি ভবনের এক নম্বর হলে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন। বিএনপিপন্থি আইনজীবীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, তারা এমন করতে পারেন না, আমরা মনে করি কেউ যদি আদালতে হট্টগোল করে, স্লোগান দেয়, তাহলে আদালত অবমাননা হয়। তিনি বলেন, তাদের হট্রগোলের কারণে সোয়া ১টা পর্যন্ত আদালতের কার্যক্রম বন্ধ ছিল। শুনানির জন্য আইনজীবীরা উপস্থিত ছিলেন। কিন্তু অপরিচিত লোকজনদের স্লোগানে বিচারিক কার্যক্রম চলেনি।

বিএনপিপন্থী আইনজীবীদের হট্টগোল ও আদালতের কার্যক্রমে ব্যাঘাত ঘটনোকে ফ্যাসিবাদী আচরণ বলেও মন্তব্য করেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। বলেন, সকাল ৯টায় আদালত বসেন।
তাদের (খালেদা জিয়ার) আইটেম আগামী বৃহস্পতিবার (১২ ডিসেম্বর) শুনানির জন্য রাখেন। তারপর তারা যা করেছেন তা অভাবনীয়, তারা ফ্যাসিবাদী আচরণ করেছেন। আদালত কক্ষে কিছু আইনজীবী ছিলেন, যারা অপরিচিত। তারা আপিল বিভাগে হট্টগোল ও গণ্ডগোল করেছেন। সবচেয়ে দুঃখজনক ব্যাপার হলো, ওই সময় বিএনপির কিছু সিনিয়র আইনজীবী কোর্টে বসেছিলেন। কিন্তু তারা ব্যাঘাত সৃষ্টিকারী আইনজীবীদের থামানোর চেষ্টা করেননি। তারা জবরদস্তি করে আদালতের ওপর চাপ দিতে চেয়েছেন।

মাহবুবে আলম অভিযোগ করে বলেন, তারা খালেদা জিয়ার জামিন শুনানি নিয়ে ব্যস্ত। কিন্তু আপিল শুনানির কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছেন না। বরং নানা অজুহাতে এবং এ মামলাকে তারা রাজনৈতিক দৃষ্টিকোণ থেকে ফায়দা লোটার চেষ্টা করছেন। তিনি বলেন, বেগম জিয়া একজন অপরাধী। দুর্নীতির মামলার সাজা প্রাপ্ত আসামি। তারা আবেদন করেছেন। আদালতের ক্ষমতা রয়েছে। তারা বিবেচনা করবেন জামিন দেবেন বা দেবেন কি না। কিন্তু আদালতের সামনে গিয়ে এ রকম কাজে ব্যাঘাত ঘটানো ফ্যাসিবাদী কাজ। প্রধান বিচারপতির প্রতি অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, আমি অনুরোধ করবো, যেসব আইনজীবী আপিল বিভাগের এনলিস্টেড, তারা ছাড়া আর কোনো আইনজীবী যেন আপিল আদালতে ঢুকতে দেয়া না হয়। যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্যসহ পৃথিবীর বহু দেশে এমন নিয়ম মেনে চলা হয়। অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, বিএনপিপন্থী আইনজীবীরা যে বিশৃঙ্খলা করেছেন, আমাদের বয়সে এ ধরনের বিশৃঙ্খলা আদালতে করতে দেখিনি।

সংবাদ সম্মেললনে এ সময় উপস্থিত ছিলেন, অ্যাডভোকেট ফজলে নূর তাপস, ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অ্যাডভোকেট আমিন উদ্দিন মানিক, ব্যারিস্টার আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ বাশারসহ সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেলগণ।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

সুলতান

২০১৯-১২-০৫ ১৪:১৭:১৯

যারা আদালতেক সম্মান করে না। তারা দেষের আইনকেও সম্মান করে না এরা হল চক্রান্তকারী ও দেশে অশান্তি সৃষ্টি কারী ওরা শয়তান ধারা পরিচালিত এদের কঠিন বিচারের ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে, ইন শা আল্লাহ্। আরা যারা ষড়যন্ত্র করে মানুষকে নেয় বিচার থেকে বঞ্চিত করে মাননীয় আদালতকে ঐসব সব ষড়যন্ত্রকারীদেরকও কঠিন বিচারের আওতায় এনে শাস্তি নিশ্চিত করা। তরাও আল্লাহ্রর জমিনে অশান্তি সৃষ্টি কারী ও বরবাদীদের অন্তর ভুক্ত। বাকি সবই মহান আল্লাহ্ ভাল।

ahammad

২০১৯-১২-০৫ ১২:০১:৩৫

জনাব,দয়াকরে আদালত অবমাননার সঙ্গা দিবেন কি ? জনগন আদালত অবমাননার সঙ্গা জনতে চায় ????

আপনার মতামত দিন

প্রথম পাতা অন্যান্য খবর

লালদিঘি গণহত্যার রায়

পুলিশের সাবেক ৫ সদস্যের মৃত্যুদণ্ড

২১ জানুয়ারি ২০২০

সিপিবি’র সমাবেশে হামলার রায়

১০ আসামির মৃত্যুদণ্ড

২১ জানুয়ারি ২০২০

ভোটের শহরে

কৌতূহল

২১ জানুয়ারি ২০২০

৫০ ভোটকেন্দ্র নিয়ে শঙ্কা

২০ জানুয়ারি ২০২০

নারীবান্ধব শহর গড়ে তুলবো

২০ জানুয়ারি ২০২০

ভোটের লড়াইয়ে জিততে হবে

২০ জানুয়ারি ২০২০

ভোটাররাই আমার অভিভাবক

২০ জানুয়ারি ২০২০





প্রথম পাতা সর্বাধিক পঠিত