কক্সবাজারে এইডসের ভয়াবহ বিস্তার, আক্রান্ত ৫৩৮

স্টাফ রিপোর্টার, কক্সবাজার থেকে

বাংলারজমিন ৪ ডিসেম্বর ২০১৯, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ১০:২৭

কক্সবাজারে ভয়াবহভাবে বিস্তার ঘটছে মরণব্যাধি এইডসের। বিশেষ করে রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলোতে এইডস রোগের বিস্তার ভয়াবহ রূপ নিয়েছে। রোহিঙ্গাদের পাশাপাশি স্থানীয়রাও রয়েছে এইডস ঝুঁকিতে। পেশাদার-অপেশাদার যৌনকর্মী ও মাদকাসক্তদের অবাধ যৌনাচারের কারণে বর্তমানে জেলায় এইডস আক্রান্তের সংখ্যা ৫৩৮ জন। এর মধ্যে ৩৯৫ জনই রোহিঙ্গা। জেলায় এ পর্যন্ত এইডস আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে ২৯ রোহিঙ্গাসহ ৭২ জন। আক্রান্ত ও মৃতের এ সংখ্যা আরো বাড়তে পারে। এইচআইভি-এইডস নিয়ে কাজ করা এনজিও ও কক্সবাজার সদর হাসপাতালের এইচআইভি ট্রিটমেন্ট সেন্টার সূত্রে পাওয়া গেছে এ ভয়াবহ চিত্র।
একবছর আগেও এই রোগীর সংখ্যা ছিল ৪১১ জন। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, সঠিকভাবে পরীক্ষা করা হলে এইডস রোগীর সংখ্যা আরো বাড়বে।

জরিপ যাই হোক, কক্সবাজার যে ভয়াবহ এইডস ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে এ নিয়ে কারও দ্বিমত নেই। প্রতিবেশী দেশ মিয়ানমারে ৩২ শতাংশ যৌনকর্মী এইডস রোগে আক্রান্ত। কক্সবাজারের সর্বত্র এখন মিয়ানমারের রোহিঙ্গাদের ছড়াছড়ি।

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে এইচআইভি নিয়ে কাজ করা একজন এনজিও কর্মী জানান- তাদের কাছে তথ্য রয়েছে কক্সবাজারের বিভিন্ন হোটেল, মোটেল ও গেস্ট হাউসে ৫ হাজারেরও বেশি রোহিঙ্গা তরুণীর যাতায়াত। তারা অনিরাপদভাবেই দেশি-বিদেশি পর্যটক ও স্থানীয়দের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করছে। এতে কক্সবাজারে এই রোগ ভয়াবহভাবে ছড়িয়ে পড়ছে। রোহিঙ্গা যৌনকর্মী ছাড়াও পর্যটন শহর হওয়ায় দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে টাকা আয়ের উদ্দেশ্যে যৌনকর্মীদের ব্যাপকহারে কক্সবাজার আগমনও এইডস বিস্তারের আরেকটি অন্যতম কারণ। এদিকে ভাসমান যৌনকর্মী ছাড়াও প্রবাসী অনেকেই এইডস আক্রান্ত হয়ে দেশে ফিরছেন। যাদের অনেকেই বিদেশে অবস্থানের সময় সেখানকার যৌনকর্মীদের সঙ্গে অবাধে মেলামেশা করে এসব রোগ দেশে বহন করে এনেছে। এইচআইভি সংক্রামক রোগ হওয়ায় এসব ব্যক্তির কারণে তাদের স্ত্রীদেরও আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি থাকে।

এইচআইভি নিয়ে কাজ করা এনজিওদের কাছ থেকে জানা গেছে, বর্তমানে জেলায় রোহিঙ্গা ছাড়াও স্থানীয় ২ হাজারের মতো যৌনকর্মী রয়েছেন। যাদের বেশিরভাগের এইচআইভি সম্পর্কে স্বচ্ছ কোনো ধারণা নেই। ফলে তাদের মধ্যে কতজনের শরীরে এইচআইভি ভাইরাস রয়েছে তা জানা সম্ভব হয়নি। এ ছাড়াও সমকামীদের বিষয়টি অনেকেই জানে না অথবা জানলেও লজ্জায় অনেকেই মুখ খুলে না বলেও জানা যায়।

কক্সবাজার সদর হাসপাতালের আবাসিক স্বাস্থ্য কর্মকর্তা (আরএমও) ডা. শাহীন আবদুর রহমান জানিয়েছেন, ২০১৫ সাল থেকেই কক্সবাজার সদর হাসপাতালে এইচআইভি বা এইডস স্ক্যানিংয়ের কার্যক্রম শুরু হয়। যেখানে এইডস নির্ণয়, কাউন্সিলিং ও চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। রোহিঙ্গাদের বাইরে যারা আছেন, তাদের পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে চিকিৎসার আওতায় আনার বিষয়ে আমরা কাজ করছি। ২০১৭ সালের অক্টোবরে রোহিঙ্গা স্রোত শুরু হওয়ার পর থেকে নভেম্বর পর্যন্ত কক্সবাজারে ৫৩৮ জনের শরীরে এইচআইভি ভাইরাস শনাক্ত করা হয়েছে। সূত্র জানায়, আক্রান্ত ৫৩৮ জনের মধ্যে ২১৯ জন পুরুষ, ২৫৫ জন নারী ও ৬৩ জন শিশু রয়েছে। একজন হিজড়ার শরীরেও এইচআইভির জীবাণু পাওয়া গেছে। গত বছরও এই সংখ্যা ছিল ৪১২ জন। ২০১৭ সালে ছিল ১৩২ জন। এ রোগে ২৯ রোহিঙ্গাসহ ৭২ জনের মৃত্যু হয়েছে। তবে মারা যাওয়া ছাড়া এইডস আক্রান্ত জীবিতরা কে, কোথায়, কোন অবস্থায় আছে তার কোনো হিসাব সরকারি ও বেসরকারি পর্যায়ের কোনো প্রতিষ্ঠানের কাছে নেই।

তিনি আরো জানান, হাসপাতালে ন্যাশনাল এইডস বা এসটিডি কর্মসূচি নামে একটি প্রকল্প চালু আছে। গত বছর সেপ্টেম্বর থেকে ইউনিসেফের সহযোগিতায় হাসপাতালে এইচআইভি আক্রান্ত গর্ভবতী মায়েদের জন্য প্রিভেনশন মাদার টু চাইল্ড ট্রান্সমিশন (পিএমসিটি) নামে একটি প্রোগ্রাম চালু হয়। এ প্রোগ্রামে এইচআইভি পজিটিভ নারীর গর্ভের সন্তানটি যাতে সুস্থ থাকে সে লক্ষ্যে কাজ করা হচ্ছে।

কক্সবাজার সিভিল সার্জন ডা. মো. আবদুল মতিন বলেছেন, কক্সবাজার এইডসের জন্য এখন বিপদজনক এলাকা। তিনি জানান, রোহিঙ্গারা যে হারে এই রোগে আক্রান্ত হচ্ছে সে তুলনায় শনাক্ত করা হচ্ছে কমই। প্রকৃত অর্থে আক্রান্তের সংখ্যা আরো অনেক বেশি। এইডস প্রতিরোধে সবাই সতর্ক হওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, জেলা সদর হাসপাতালে নানা উদ্যোগ ছাড়াও মাঠপর্যায়ে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে উখিয়া ও টেকনাফে বিভিন্ন বেসরকারি সংস্থার ১২টি টিম কাজ করছে।

আপনার মতামত দিন

বাংলারজমিন অন্যান্য খবর

‘মোংলাকে আন্তর্জাতিক মানের বন্দর হিসেবে তৈরির পরিকল্পনা করছে সরকার’

২৪ জানুয়ারি ২০২০

খুলনা সিটি করপোরেশনের মেয়র তালুকদার আবদুল খালেক বলেছেন, দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলসহ দেশের সামগ্রিক অর্থনীতিতে মোংলা বন্দরের ভূমিকা ...

হারপিক পানে এমপি পুত্রের আত্মহত্যা

২৪ জানুয়ারি ২০২০

হারপিক পান করে আত্মহত্যার চেষ্টা করা খুলনা-৫ আসনের (ডুমুরিয়া-ফুলতলা) সংসদ সদস্য ও সাবেক মৎস্য ও ...

নাঙ্গলকোটে তরুণী ধর্ষিত

২৪ জানুয়ারি ২০২০

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে তরুণীকে ধর্ষণের দায়ে পুলিশ এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে। গতকাল ধর্ষককে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে ...

বরুড়ায় নিরবচ্ছিন্ন গ্যাসের দাবিতে মানববন্ধন

২৪ জানুয়ারি ২০২০

বরুড়ায় নিরবচ্ছিন্ন গ্যাসের দাবিতে সর্বস্তরের মানুষের অংশগ্রহণে বিশাল মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বরুড়া নাগরিক সমাজের ...

মোবাইল ফোনে প্রেমের করুণ পরিণতি

২৪ জানুয়ারি ২০২০

 লিমা একজন শারীরিক প্রতিবন্ধী। বিয়ের পর সংসার হয়। গর্ভে একটি সন্তানও জন্ম দিয়েছেন। পরে স্বামী ...

মৌলভীবাজারে পরিবহন ধর্মঘট স্থগিত

২৪ জানুয়ারি ২০২০

পুলিশ প্রশাসনের আশ্বাসের প্রেক্ষিতে মৌলভীবাজার জেলা সড়ক পরিবহন ঐক্য পরিষদের ডাকা জেলা ব্যাপী ৪৮ ঘন্টার ...

প্রতিবন্ধী নারী ধর্ষণের দৃশ্য মোবাইলে ধারণ

২৪ জানুয়ারি ২০২০

রাজশাহীর মোহনপুরে প্রতিবন্ধী তরুণীকে ধর্ষণের দৃশ্য মোবাইলে ভিডিও ধারণ করার ঘটনায় দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ...

সেভ দ্য সোসাইটির এনএসটিইউ শাখার কমিটি গঠন

২৪ জানুয়ারি ২০২০

সেভ দ্য সোসাইটি এন্ড থান্ডার স্টর্ম অ্যাওয়ারনেস ফোরাম এর নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শাখার ...

চাঁদা না দেয়ায় বাস ভাঙচুর

২৪ জানুয়ারি ২০২০

আশুলিয়ায় দাবিকৃত চাঁদা না দেয়ায় আশুলিয়া ক্লাসিক পরিবহনের একটি বাস ভাঙচুর এবং সুপারভাইজারকে মারধরের অভিযোগে ...

আগুন কেড়ে নিলো ঘুমন্ত ভাইবোনকে

২৪ জানুয়ারি ২০২০

খাগড়াছড়ির মানিকছড়ি উপজেলার দুর্গম বাটনাতলীতে আগুনে পুড়ে মংসালু মারমা (১১) ও ওমরা মারমা (৬) নামে ...

হবিগঞ্জে জরায়ু ক্যান্সার সচেতনতা মাস শুরু

২৪ জানুয়ারি ২০২০

‘এ যাত্রা কারো একার নয়’ এই প্রতিপাদ্য নিয়ে হবিগঞ্জে শুরু হলো জরায়ু মুখ ক্যান্সার সচেতনতা ...





বাংলারজমিন সর্বাধিক পঠিত