হলকারে মুমিনুলের নতুন অধ্যায়

খেলা

ইশতিয়াক পারভেজ, ইন্দোর (ভারত) থেকে | ১৩ নভেম্বর ২০১৯, বুধবার
মধ্যপ্রদেশের ছোট্ট শহর ইন্দোর। এখানে পুরোপুরি অধুনিকতার ছোঁয়া লাগেনি এখনো। ছোট ছোট পুরনো বাড়ি ঘরের মধ্যে শহুরে জাঁকজমক নেই বললেই চলে। তবে এখানে বড় উত্তেজনা জমে ঠিক শহরের মাঝখানে হলকার ক্রিকেট স্টেডিয়ামে। আন্তর্জাতিক ম্যাচ হলেই আলোকিত হয়ে ওঠে চারপাশ। এই স্টেডিয়ামেই সিরিজের প্রথম টেস্টে আগামীকাল মুখোমুখি ভারত-বাংলাদেশ। ওয়ানডে আর টি-টোয়েন্টির মতো দর্শক হয়তো হবে না টেস্টে। তবে স্টেডিয়ামে আয়োজনের কমতি নেই।
সাদা পোশাকের লড়াইকে জমিয়ে তুলতে নেয়া হচ্ছে রঙিন আয়োজনের উদ্যোগ। নিরাপত্তা নিশ্চিতের জন্য মধ্যপ্রদেশের পুলিশকে সারা দিনই দেখা গেল দৌড়ঝাঁপ করতে। হলকারে গতকাল সকাল ৯ টায় চলে আসে বাংলাদেশ দল। এই মাঠে নতুন অধ্যায় শুরু হচ্ছে বাংলাদেশের টেস্ট ক্রিকেটের ১১তম অধিনায়ক মুমিনুল হক সৌরভের। ভারতের মতো কঠিন প্রতিপক্ষের বিপক্ষে কোনো প্রস্ততি ছাড়াই তার দলকে শুরু করতে হবে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের চ্যালেঞ্জ। প্রস্তুতি ঘাটতি পোষাতে সকাল থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত কঠিন অনুশীলন করতে দেখা যায় টাইগারদের। মূল মাঠ থেকে অধিনায়ক মুমিনুল চলে যান ইনডোর নেটে। নিবিড় ব্যাটিং অনুশীলন করে কাটান এক ঘণ্টা।  ফেরার সময় হঠাৎ ‘কতটা কঠিন হবে?’ প্রশ্ন করতেই হেসে ফেলেন মুমিনুল, বলেন, ‘কঠিন কই, ভালোই লাগছে। টেস্ট তো আমার সবচেয়ে প্রিয়। আর আমার চ্যালেঞ্জ নিতে ভালো লাগে।’

কঠিন নিরাপত্তার কারণে বেশি কথা বলার সুযোগ নেই ভারতের কোন স্টেডিয়ামেই। তবে ইন্দোরে অন্য জায়গার তুলনায় কড়াকড়ি একটু কম। মুমিনুলের সঙ্গে কথা বলতে দেখে নিরাপত্তাকর্মীরা একটু দূরে হলেও ঘিরে থাকলেন। তাই বেশি কথা বলারও সুযোগ নেই। মাত্র একদিন আগেই সংগীতের রানী লতা মঙ্গেশকরের শহরে পা রেখেছে বাংলাদেশ দল। সেদিনই অসুস্থতার কারণে হাসপাতালে ভর্তি হন লতা। যার সুর মোহাবিষ্ট করে রাখে মানুষকে। অন্যদিকে টেস্টে বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ের সুরটাও যেন ব্যাট হাতে বেঁধে দেন মুমিনুল। তাই জানতে চাইলাম, লতার গান শোনেন কি না! এবারও চওড়া হাসিতে মুমিনুল বলেন, ‘শুনি... শুনি, মাঝে মাঝে  শুনি। লতা নয় কিশোর কুমারও শুনি।’ নিরাপত্তার কারণে ক্রিকেটীয় প্রশ্ন করার ব্যাপারে সীমাবদ্ধ রয়েছে। তবে উইকেট কেমন হবে তা জানতে চাইলে মুমিনুল বলেন, ‘এখনো দুই দিন বাকি। আপাতত উইকেটের চেয়ে ব্যাটিং নিয়েই ভাবছি।’

ইন্দোরের হলকার স্টেডিয়ামে প্রথম ও এক মাত্র টেস্ট ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয় ২০১৬ সালে। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ভারত ৩২১ রানের বড় ব্যবধানে জেতে। প্রথম ইনিংসেই বিরাট কোহলির দল ৫ উইকেটে ৫৫৭ রান করে ইনিংস ঘোষণা করে। সেখানে দলপতি বিরাটের ব্যাট থেকে আসে ডাবল সেঞ্চুরি। ২১১ রানের ইনিংসটি খেলেছিলেন ৩৬৬ বলে। ১৮৮ রানের ইনিংস আসে অজিঙ্কা রাহেনের ব্যাট থেকে।  সেই রাহানে অবশ্য গতকাল সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশকে নিয়ে সতর্ক কথার কথা জানালেন। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ দারুণ দল, তারা টিম হিসেবে ভালো খেলে। তাদের ছোট করে চিন্তা করার কোন সুযোগ আমি দেখছি না। তারা যেকোনো সময় কিছু করে ফেলতে পারে। তবে আমরাও আমাদের শক্তিতে বিশ্বাস করি। সেভাবেই  খেলতে চাই।’ এক মাত্র টেস্টের পরিসংখ্যান বলে দিচ্ছে ব্যাটসম্যানরাই রাজত্ব করবে ইন্দোরে। গতকাল অনুশীলনে ব্যাটিংয়ে বাড়তি মনোযোগ দিতে দেখা যায় টাইগারদের। ব্যাটসম্যানদের নিয়ে আলাদা করে সময় ব্যয় করেন বাংলাদেশের ব্যাটিং কোচ নিল ম্যাকেঞ্জিও।


এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

গাম্বিয়াকে সব ধরণের সমর্থন দেবে কানাডা ও নেদারল্যান্ডস

বাংলাদেশকে ছাড়িয়ে যাচ্ছে ভিয়েতনাম

রেকর্ড

সেই ক্যারিশমা তিনি ব্যয় করছেন জেনারেলদের পেছনে

রোহিঙ্গাদের বিচার পাওয়ার আশা থাকছে

বিপণি বিতানে ছাড় দিয়ে বিক্রি বাড়ানোর চেষ্টা

দুর্নীতি মুক্ত হলে দেশ আরো এগিয়ে যেতো

অজয় রায় আর নেই

অনেক পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় দিনে সরকারি, রাতে বেসরকারি

কোনো শিশু ও নারী যেন নির্যাতনের শিকার না হয়

সাড়ে তিন বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন লেনদেন

‘উগ্রবাদ দমনে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে’

‘দিল্লি সফরে গুরুত্বপূর্ণ সব ইস্যুতেই আলোচনা হবে’

মাদক মামলায় সম্রাট ও আরমানের বিরুদ্ধে চার্জশিট

দুর্নীতির মাধ্যমে অর্থনীতিকে ধ্বংস করা হয়েছে: ফখরুল

বাজি ধরে সড়কে প্রাণ গেল ২ জনের