সাতক্ষীরায় সেনা মোতায়েন

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | ১০ নভেম্বর ২০১৯, রোববার | সর্বশেষ আপডেট: ২:৪৪
ঘূর্ণিঝড় বুলবুল পরবর্তী ক্ষয়ক্ষতি মোকাবিলা ও উদ্ধার কাজে অংশ নিতে সাতক্ষীরায় সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। এছাড়া ঘূর্ণিঝড় পরবর্তী জরুরি উদ্ধার, ত্রাণ ও চিকিৎসা সহায়তায় খুলনা, চট্টগ্রাম ও সেন্টমার্টিনে ১০টি যুদ্ধজাহাজসহ  নৌ কন্টিনজেন্ট ও মেডিকেল টিম প্রস্তুত রাখা হয়েছে। পাশাপাশি ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ মোকাবিলায় ও দূর্যোগ পরবর্তী সকল প্রকার সহযোগিতা প্রদানের জন্য প্রস্তুত রয়েছে বঙ্গোপসাগর উপকূলবর্তী বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সকল পদাতিক ডিভিশন সমূহ। গতকাল পৃথক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানায় আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর)। এতে বলা হয়, ঘূর্ণিঝড় বুলবুল পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবিলায় জরুরি উদ্ধার, ত্রাণ ও চিকিৎসা সহায়তায় বরিশাল, ঝালকাঠি, পটুয়াখালী, বরগুনা, সাতক্ষীরায় ৫টি, চট্টগ্রামে ৩টি ও সেন্টমার্টিনে ২টি যুদ্ধজাহাজসহ নৌ কন্টিনজেন্ট ও মেডিকেল টিম মোতায়নের জন্য প্রস্তুত রয়েছে। খুলনা অঞ্চলের সমুদ্র উপকূলীয় এলাকায় উদ্ধার ও ত্রাণ তৎপরতা পরিচালনায় বানৌজা কর্ণফুলী, তিস্তা, পদ্মা, এলসিভিপি ০১২ ও এলসিভিপি ০১৩ মোতায়েন করা হয়েছে। পাশাপাশি ৪টি নৌ কন্টিনজেন্ট যে কোন জরুরি পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রস্তুত রয়েছে। এছাড়া চট্টগ্রামে ৩টি জাহাজ বানৌজা শাহজালাল, শাহ পরান ও অতন্দ্র দ্রুততম সময়ে জরুরি পরিস্থিতি মোকাবিলায় ক্ষতিগ্রস্থ উপকূলীয় এলাকায় ত্রাণসামগ্রী নিয়ে গমনের জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে।
ইতিমধ্যে বানৌজা সমুদ্র জয় ও সমুদ্র অভিযান জরুরি ত্রাণসামগ্রী নিয়ে সেন্টমার্টিনে অবস্থান করছে। তাছাড়া নৌবাহিনীর সার্বিক তত্ত্বাবধানে ঘূর্ণিঝড়ের কারণে সেন্টমার্টিনে আটকে পড়া পর্যটকদের নিরাপদ আশ্রয় ও প্রয়োজনীয় সহযোগিতা প্রদান করা হচ্ছে।

আইএসপিআর জানিয়েছে, খুলনা নৌ অঞ্চল থেকে মোতায়েনকৃত জাহাজসমূহ বরিশাল, ঝালকাঠি, পটুয়াখালী, বরগুনা, সাতক্ষীরার ক্ষতিগ্রস্থ এলাকাসমূহে ২০০০ প্যাকেট জরুরি খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করবে। যার প্রতিটি প্যাকেটে রয়েছে সাড়ে ৭ কেজি চাল,  দেড় কেজি ডাল, দেড় লিটার সয়াবিন তেল, ১ কেজি চিড়া, ১ কেজি মুড়ি, আধা কেজি গুড়, আধা কেজি বিস্কুট, ২ লিটার বিশুদ্ধ পানি, ২ ডজন মোমবাতি, ২ ডজন দিয়াশলাই বক্স এবং জীবন রক্ষাকারী প্রয়োজনীয় স্যালাইন ও ওষুধ। এছাড়া দুর্গত এলাকাগুলোতে জরুরি চিকিৎসা সহায়তার জন্য ৫টি বিশেষ  মেডিকেল টিম গঠন করা হয়েছে। তারা ক্ষতিগ্রস্থ এলাকায় বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা, জীবন রক্ষাকারী ওষুধ ও খাবার স্যালাইন বিতরণের কাজে নিয়োজিত থাকবে। পাশাপাশি ৪টি নৌ কন্টিনজেন্ট যে কোন জরুরি পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রস্তুত রয়েছে। ইতিমধ্যে সেন্টমার্টিনে নৌবাহিনীর ২টি যুদ্ধজাহাজ সমুদ্র জয় ও সমুদ্র অভিযান ২ টন চিড়া, ১ টন মুড়ি, ২ টন চাল, দেড় টন গুড়, ৫০০ কেজি ডাল, ৭০০ কেজি চিনি, ৫০০ প্যাকেট মোমবাতি, ২৫০ ডজন দিয়াশলাই নিয়ে ক্ষতিগ্রস্থ মানুষের সহায়তার জন্য প্রস্তুত রয়েছে। পাশাপাশি সেন্টমার্টিন-এর ফরওয়ার্ড বেইসের নৌ সদস্যরা  জরুরি উদ্ধার ও ত্রাণ কার্য পরিচালনার জন্য প্রস্তুত রয়েছে। তাছাড়া চট্টগ্রাম ও ঢাকায় উদ্ভুত পরিস্থিতি মোকাবিলায় যুদ্ধজাহাজ ও নৌ কন্টিনজেন্ট অনুরূপ ত্রাণ ও চিকিৎসা সহায়তা নিয়ে প্রস্তুত রয়েছে। আইএসপিআর জানিয়েছে, ঘূর্ণিঝড় পরবর্তী উদ্ধার তৎপরতায় নৌবাহিনী তিনস্তরের ব্যাপক কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় ও স্থানীয় প্রশাসনের সাথে সার্বক্ষণিক যোগাযোগের মাধ্যমে এ সকল কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে।
ওদিকে ঘূর্ণিঝড়ের কারণে গতকাল সকাল থেকে উপকূলীয় জেলাগুলোর মানুষজন বিভিন্ন আশ্রয় কেন্দ্রে আশ্রয় নেন। সরকারের তরফে বলা হয় ১৮ লাখ মানুষকে আশ্রয় কেন্দ্রে নেয়া হবে। তবে নির্ধারিত এলাকার অনেকে আশ্রয় কেন্দ্রে না গিয়ে নিজ নিজ বাড়িতেই অবস্থান করেন। মহাবিপদ সংকেত ঘোষণা করায় শেষ মুহুর্তে অনেকে আশ্রয় কেন্দ্রে যান।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

গাম্বিয়াকে সব ধরণের সমর্থন দেবে কানাডা ও নেদারল্যান্ডস

বাংলাদেশকে ছাড়িয়ে যাচ্ছে ভিয়েতনাম

রেকর্ড

সেই ক্যারিশমা তিনি ব্যয় করছেন জেনারেলদের পেছনে

রোহিঙ্গাদের বিচার পাওয়ার আশা থাকছে

বিপণি বিতানে ছাড় দিয়ে বিক্রি বাড়ানোর চেষ্টা

দুর্নীতি মুক্ত হলে দেশ আরো এগিয়ে যেতো

অজয় রায় আর নেই

অনেক পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় দিনে সরকারি, রাতে বেসরকারি

কোনো শিশু ও নারী যেন নির্যাতনের শিকার না হয়

সাড়ে তিন বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন লেনদেন

‘উগ্রবাদ দমনে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে’

‘দিল্লি সফরে গুরুত্বপূর্ণ সব ইস্যুতেই আলোচনা হবে’

মাদক মামলায় সম্রাট ও আরমানের বিরুদ্ধে চার্জশিট

দুর্নীতির মাধ্যমে অর্থনীতিকে ধ্বংস করা হয়েছে: ফখরুল

বাজি ধরে সড়কে প্রাণ গেল ২ জনের