মা-বাবার পাশেই সমাহিত মইন উদ্দীন খান বাদল

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম থেকে | ১০ নভেম্বর ২০১৯, রোববার
চট্টগ্রাম-৮ বোয়ালখালী-চান্দগাঁও আসনের সংসদ সদস্য, জাসদ নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা মইন উদ্দীন খান বাদলকে তার মা-বাবার পাশে পারিবারিক কবরস্থানে সমাহিত করা হয়েছে। তৃতীয় জানাজা শেষে গতকাল শনিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে তার মরদেহ সমাহিত করা হয়। শনিবার বাদ আসর তার দাফন সম্পন্ন করার প্রস্তুতি থাকলেও ঘূর্ণিঝড় বুলবুল- এর প্রভাবে বৈরী আবহাওয়ার কারণে দাফন বিলম্বিত হয়। বাদ মাগরিব চট্টগ্রাম জমিয়াতুল ফালাহ জামে মসজিদ ময়দানে তার দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

তার ছোট ভাই মনির উদ্দিন খান জানান, বাড়ির পাশে পারিবারিক কবরস্থানে রাত সাড়ে ৯টার দিকে পিতা-মাতার পাশেই বড় ভাই মইন উদ্দীন খান বাদলকে সমাহিত করা হয়েছে। যদিও বাদ মাগরিবে দাফন কাজ সম্পন্ন করার প্রস্তুতি ছিল।

তিনি জানান, দুপর ২টায় হেলিকপ্টারে করে তার মরদেহ শাহ আমানত বিমান বন্দরে পৌঁছার কথা ছিল। কিন্তু ঘূর্ণিঝড় বুলবুল-এর প্রভাবের কারণে বিমান বন্দরের কার্যক্রম বন্ধ থাকায় তা আর সম্ভব হয়নি।
ফলে সড়ক পথে মরদেহ আনা হয়।

মাগরিবের সময় মরদেহ পৌঁছানোর পর এখানে দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজায় হাজার মানুষ অংশ নেন। এরপর বোয়ালখালী সিরাজুল ইসলাম ডিগ্রি কলেজ মাঠে তৃতীয় জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

এর আগে শনিবার সকাল ১০টা ৫ মিনিটে জাতীয় সংসদ ভবনের টানেলে মইন উদ্দীন খান বাদলের জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজা শেষে গার্ড অব অনার দেয়া হয় মুক্তিযোদ্ধা মইন উদ্দীন খান বাদলকে। জানাজায় অংশ নেন, আওয়ামী লীগের সাধারণ সমপাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ, সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মহীউদ্দীন খান আলমগীর, সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম, ব্যারিস্টার আনিসুল হক, সংসদ সদস্য (বিএনপি) হারুনুর রশিদ, জাসদ সাধারণ সমপাদক শিরীন আখতারসহ অনেকেই।

প্রথম জানাজা শেষে শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য বাদলের মরদেহ কিছুক্ষণের জন্য সংসদ প্রাঙ্গণে রাখা হয়। এ সময় মরদেহের প্রতি শ্রদ্ধা জানান, রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদের পক্ষে তার সামরিক সচিব, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, সিপকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, ডেপুটি সিপকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়া, একাদশ জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী, ১৪ দলের পক্ষ থেকে সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী নাসিমসহ অন্য নেতারা।

স্থানীয়রা জানান, বাদলের গ্রামের বাড়ি সারোয়াতলীর খান মহলে এ মুহূর্তে বিরাজ করছে সুনসান নীরবতা। মাঝে মাঝেই মহলের অন্দর থেকে ভেসে আসছে ভাইবোন আর স্বজনদের কান্নার আওয়াজ। পাঁচ ভাই ও তিন বোনের মধ্যে বাদল তৃতীয়।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সময় সকাল ৭টা ৪৫ মিনিটে ভারতের ব্যাঙ্গালুরুর নারায়ণ হৃদরোগ রিসার্চ ইনস্টিটিউট অ্যান্ড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান মইন উদ্দীন খান বাদল।
১৯৫২ সালের ২১শে ফেব্রুয়ারি জন্ম নেয়া মইন উদ্দীন খান বাদল বোয়ালখালী উপজেলা জাসদের সভাপতি ছিলেন। তিনি চট্টগ্রাম-৮ আসনের তিনবার নির্বাচিত সংসদ সদস্য ছিলেন। তার তিন ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে।


এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

গাম্বিয়াকে সব ধরণের সমর্থন দেবে কানাডা ও নেদারল্যান্ডস

বাংলাদেশকে ছাড়িয়ে যাচ্ছে ভিয়েতনাম

রেকর্ড

সেই ক্যারিশমা তিনি ব্যয় করছেন জেনারেলদের পেছনে

রোহিঙ্গাদের বিচার পাওয়ার আশা থাকছে

বিপণি বিতানে ছাড় দিয়ে বিক্রি বাড়ানোর চেষ্টা

দুর্নীতি মুক্ত হলে দেশ আরো এগিয়ে যেতো

অজয় রায় আর নেই

অনেক পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় দিনে সরকারি, রাতে বেসরকারি

কোনো শিশু ও নারী যেন নির্যাতনের শিকার না হয়

সাড়ে তিন বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন লেনদেন

‘উগ্রবাদ দমনে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে’

‘দিল্লি সফরে গুরুত্বপূর্ণ সব ইস্যুতেই আলোচনা হবে’

মাদক মামলায় সম্রাট ও আরমানের বিরুদ্ধে চার্জশিট

দুর্নীতির মাধ্যমে অর্থনীতিকে ধ্বংস করা হয়েছে: ফখরুল

বাজি ধরে সড়কে প্রাণ গেল ২ জনের