প্রাপ্তবয়স্কদের ১৭ শতাংশ মানসিক রোগে ভুগছে

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | ৮ নভেম্বর ২০১৯, শুক্রবার
দেশের প্রাপ্তবয়স্ক জনসংখ্যার মধ্যে প্রায় ১৭ শতাংশ ও শিশুদের ১৪ শতাংশ মানসিক রোগে আক্রান্ত। প্রাপ্তবয়স্কদের মধ্যে প্রায় ৭ শতাংশ মানসিক অবসাদজনিত (ডিপ্রেশন) এবং শিশুদের মধ্যে ৫ দশমিক ৯ ভাগ স্নায়ুবিকাশজনিত মানসিক সমস্যায় ভুগছে। গতকাল রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউটের কনভেনশন হলে আয়োজিত জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য জরিপের (২০১৮-১৯) ফলাফল উপস্থাপন অনুষ্ঠানে এ তথ্য জানানো হয়। অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক প্রধান অতিথি ছিলেন। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নন-কমিউনিকেবল ডিজিজ কন্ট্রোল বিভাগ ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সহায়তায় জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের উদ্যোগে এ জরিপ কার্যক্রম পরিচালিত হয়।
জরিপ করা হয় প্রাপ্তবয়স্ক ৭ হাজার ২৭০ জন ও ২ হাজার ২৪৬ জন শিশুর ওপর। জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের সহযোগী অধ্যাপক ডা. হেলালউদ্দিন আহমেদ জানান, প্রাপ্তবয়স্ক ১৬ দশমিক ৮ শতাংশ মানসিক রোগীদের মধ্যে ৯২ শতাংশ কোনো প্রকার চিকিৎসা গ্রহণ করে না। অপরদিকে, ১৩ দশমিক ৬ ভাগ শিশু রোগীদের মধ্যে ৯৪ শতাংশই কোনো প্রকার চিকিৎসা গ্রহণ করে না।
তবে আশার খবর হলো, মানসিক সমস্যায় আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে যে ৮ শতাংশ চিকিৎসা গ্রহণ করেন, তাদের ৮০ শতাংশ রোগী বিজ্ঞানভিত্তিক চিকিৎসা অর্থাৎ প্রশিক্ষিত চিকিৎসকের কাছে চিকিৎসা গ্রহণ করেন। এর আগে সর্বশেষ ২০০৫ সালে জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য জরিপ হয়েছিল।


এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

সৌদি আরবে নারীত্ববাদ, সমকামিতা, নাস্তিক্যবাদ উগ্রপন্থিদের ধারনা

প্রতিবন্ধীকে মারধর করা সেই ছাত্রলীগ কর্মীকে শোকজ

ঘুরতে যাবার সময় লাশ হলেন রুবেল, আহত মুন্না ঢামেকে

নিহতদের প্রত্যেক পরিবার পাবে ১ লাখ টাকা: রেলমন্ত্রী

বুলবুলের পর আসছে নাকরি

৩ তদন্ত কমিটি গঠন

দূর্ঘটনায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতিতেও সরকারে ভ্রুক্ষেপ নেই- মির্জা ফখরুল

হাসপাতালে ভর্তি সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট জিমি কার্টার

৭ ঘণ্টা পর ঢাকা-চট্টগ্রাম রেল যোগাযোগ শুরু

আহত ৪৪ জন সদর হাসপাতালে

সেলাই না করেই পালালেন চিকিৎসক, রোগীর মৃত্যু

আতঙ্কে বিলিয়নিয়াররা!

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে নিখোঁজ মার্কিন সাবমেরিন উদ্ধারের বিস্ময়কর কাহিনী

প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রীর শোক প্রকাশ

আহত শিশুটি একা, পাশে নেই বাবা-মা

দুর্ঘটনা দেখতে এসে পেলেন স্বজনের লাশ