ফিক্সিং কেলেঙ্কারিতে ভারতীয় ক্রিকেটার গ্রেফতার

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ৭ নভেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার | সর্বশেষ আপডেট: ৩:২৫
কর্ণাটকা প্রিমিয়ার লীগে (কেপিএল) ফিক্সিং কেলেঙ্কারিতে আজ দুইজন ভারতীয় ক্রিকেটারকে গ্রেফতার করেছে ভারতীয় পুলিশ। এছাড়া গতকালও একজনকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ। শুধুমাত্র ক্রিকেটার নয় কোচ ও মালিক ফিক্সিংয়ে সরাসরি জড়িত থাকায় তাদেরও গ্রেফতার করা হয়।
গতমাসে হাবলি টাইগার্সের ব্যাটসম্যান এম বিশ্বনাথকে ম্যাচ ফিক্সিং ও জুয়ারিদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখার দায়ে গ্রেফতার করে সেন্ট্রাল ক্রাইম ব্রাঞ্চ অফ বেঙ্গালুরু (সিসিবিবি)। এবার বেঙ্গালুরু ব্লাস্টার্সের ব্যাটসম্যান নিশান্ত সিং শিখওয়াতকে একই অপরাধে গ্রেফতার করে তারা। নিশান্তকে গতকাল গ্রেফতার দেখানো হয়। আর আজ গ্রেফতার হলেন বেলারি টাস্কার্সের দুজন খেলোয়াড়কে গ্রেফতার করা হয়। তারা হলেন অধিনায়ক সিএম গৌতম ও আবরার কাজী। তারা দুজনে সরাসরি ফিক্সিংয়ের সঙ্গে জড়িত ছিলেন।
টুর্নামেন্টের ফাইনালে হাবলি টাইগার্সের বিপরীতে মাঠে নেমেছে গৌতমের টাস্কার্স। এই ম্যাচে ধীরগতির ব্যাটিংয়ের জন্য তাদের ২০ লাখ রুপি প্রস্তাব করা হয়। এবং তারা সেটাই করেন। তাই টাস্কার্স ম্যাচটি হারে ৮ রানে। এছাড়াও আরো ম্যাচে তারা ফিক্সিং করে বলে প্রমাণ পাওয়া যায়। যদিও দুজনে এখন দল ছেড়েছেন।
ক্রিকেটার ছাড়া কেপিএলে অংশ নেয়া ফ্যাঞ্চাইজি বেঙ্গালুরু ব্লাস্টার্সের বোলিং কোচ ভিসু বিনোদ ও বেলগাভি প্যান্থার্সের মালিক আলি আসফাক থারাকেও ফিক্সিংয়ে জড়িত থাকায় গ্রেফতার করে সিসিবিবি। বেলগাভি প্যান্থার্সকে নিষিদ্ধ করেছে কেপিএল কর্তৃপক্ষ।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ইডেন টেস্ট নিয়ে যা বললেন দুই ভারতীয় সাংবাদিক (ভিডিও)

জেলা প্রশাসনের গঠিত তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন দাখিল

দুর্নীতির মামলায় অভিযুক্ত ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী

কুবির সমাবর্তন ফি কমাতে আইনি নোটিশ

ইসরাইলকে দেয়া যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে বড় উপহার

চাঁপাইনবাবগঞ্জে ২২শ ইয়াবাসহ ইউপি সদস্য রঞ্জু আটক

লক্ষ্মীপুরে ডাকাতির প্রস্তুতির সময় গণপিটুনিতে নিহত ১

ইডেন টেস্ট দেখতে কলকাতার পথে প্রধানমন্ত্রী

‘নাচের মূলধারার শিল্পীদের উপেক্ষা করা হচ্ছে’

আবরার হত্যা: ২৬ শিক্ষার্থীকে স্থায়ী বহিষ্কার

দ্রব্যমূল্যে জেরবার মানুষ

‘তদারকির দুর্বলতায় এমন পরিস্থিতি’

এখনো স্বাভাবিক হয়নি সড়ক

ইডেনে গোলাপি বলের রোমাঞ্চ

লিভ টুগেদার: যা বললেন সেলিম প্রধান

সড়ক আইন প্রয়োগে বাড়াবাড়ি হবে না