প্রিয় শিক্ষক: রুহুল আমিন

পাল্টে যায় বিদ্যালয়ের চিত্র

ষোলো আনা

সাওরাত হোসেন সোহেল | ৫ অক্টোবর ২০১৯, শনিবার | সর্বশেষ আপডেট: ৯:১২
কুড়িগ্রাম জেলার ভাঙনকবলিত উপজেলা চিলমারীর সন্তান মো. রুহুল আমিন। ছোট থেকেই ইচ্ছা ছিল শিক্ষক হওয়ার। গরিব মেধাবীদের পাশে দাঁড়ানোর সঙ্গে মানুষের সেবা করার। ইচ্ছা থেকেই আসা শিক্ষকতায়। শিক্ষকতায় যোগদানের আগে থেকেই গরিব শিক্ষার্থীদের বিনা পয়সায় পড়াতেন।

২০০১ সালে উপজেলার ফকিরেরহাট উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেন। এরপরেই পাল্টে যায় বিদ্যালয়ের চিত্র। উন্নত হয় শিক্ষার মান। রুহুল আমিন নিজেও সময় মতো আসেন স্কুলে।
সব সময় খোঁজ নেন অনুপস্থিত শিক্ষার্থীদের বিষয়ে। শুধু তাই নয় গরিব মেধাবী শিক্ষার্থীদের বিনা পয়সায় পড়ান এখনো। এ ছাড়া বিদ্যালয় ছুটির পরও ১০ম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের নিয়ে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা ও পরামর্শ দিয়ে থাকেন। তিনি দুইবার শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষক হিসেবে পুরস্কৃত হন। প্রধান শিক্ষক মো. রুহুল আমিন বলেন, আমি একজন শিক্ষক আমার নৈতিক দায়িত্ব ছেলে-মেয়েদের সুশিক্ষায় শিক্ষিত করে তোলা। যেন সঠিক জ্ঞান অর্জন করতে পারে সেদিকে নজর রাখা।


এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

তাজুল ইসলাম

২০১৯-১০-০৪ ২০:০৫:৩৯

খুব ভাল।

Kazi

২০১৯-১০-০৪ ১৮:২৭:০২

এ রকম আদর্শের বড় অভাব এখন দেশে। আদর্শ চরিত্রবান্ ছাত্র তৈরি হয় আদর্শবান শিক্ষকের পরশে। আজকাল ছাত্ররা আপন সহপাঠীকে খুন করে। বড়ই দুঃখ হয়।

আপনার মতামত দিন

সন্ত্রাস-সাম্প্রদায়িকতা রুখে দেয়ার শপথ বুয়েটে

সোহরাওয়ার্দীতে সমাবেশ করবে ঐক্যফ্রন্ট

সেই বড় ভাই কারা

ফের আলোচনায় আবদুল হাই বাচ্চু

অভিযান অব্যাহত থাকবে

মাটি কেনায় নয়ছয়ের পাঁয়তারা

ইন্টারগেশন সেলে মুুখোমুখি হচ্ছেন সম্রাট-আরমান

সড়কের দুই পাশে ট্রাক বাস রেখে চাঁদাবাজি করা হয় : শামীম ওসমান

কোনো উদ্যোগেই দাম কমছে না পিয়াজের

তদন্ত প্রতিবেদন ২০শে নভেম্বর

বিএনপি সরকারের রেল বন্ধের সিদ্ধান্ত ছিল দেশের জন্য আত্মঘাতী

প্রেমের টানে জৈন্তাপুরে ভারতীয় খাসিয়া নারী হুলুস্থুল

এবার তহবিল চায় রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক

আইনজীবীর হাতে হাতকড়া বিচারক অবরুদ্ধ এজলাস ভাঙচুর

চট্টগ্রামে গতি পেলো মেট্রোরেল

বরগুনায় রিফাত হত্যার প্রধান আসামির জামিন নামঞ্জুর