চিন্তার কোনো কারণ নেই

ষোলো আনা

সাওরাত হোসেন সোহেল | ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ৪:২৫
ঘর নেই, নেই থাকার জায়গা। সঙ্গী তাদের চোখের জল। বন্যা আর ভাঙনে দিশাহারা কুড়িগ্রামের চিলমারীর ভাঙনকবলিত এলাকার অসহায় পরিবারগুলো। এসেছিল বন্যা, সঙ্গে তীব্র ভাঙনে ছিন্নভিন্ন হয়ে যায় গ্রামের পর গ্রাম। কেড়ে নেয় শতশত পরিবারের শেষ সম্বল। থাকার স্থান। এখন নেমে গেছে বন্যার পানি। তবে অনেকেই ফিরতে পারেন নি ঘরে।
এই অসহায় মানুষগুলোর স্থান হয়েছে তাঁবুতে। সরকারের দেয়া এ তাঁবুগুলোই এখন তাদের একমাত্র ভরসা।

তাঁবুতে বসবাসকারী অষ্টমীরচর ইউনিয়নের মুদাফৎ কালিকাপুর এলাকার ৯০ বছর বয়সী বৃদ্ধ মোহাম্মদ আলী। তিনি বলেন, কি আর কমু বাহে, বানের পানি ভেসে নিচে ঘর। আর ভাঙন কাড়ি নিচে থাকার জায়গা। এখন নাই ঘর, নাই থাকার ভিটা। তাই পড়ি আছি অন্যের জায়গাত আর থাকি তাঁবুর ভেতরত।

কিন্তু চিন্তা আছে তাদের মাঝে। ফেরত দিতে হবে এই তাঁবুগুলো। মোহাম্মদ আলীর স্ত্রী হাসিনা বলেন, ঘর করার পয়সা নাই থাকার জায়গা নাই। সরকারি তাঁবুগুলোও ফেরত দেয়া লাগবে। তখন হামরা কোটে যামো। থাকার লাগবে খোলা আকাশের নিচোত। একই কথা জানান- রমনা খড়খড়িয়া এলাকার শহিদুল, আজিজুর, আহেকুলসহ অনেকে। ইতিমধ্যে স্থানীয় চেয়ারম্যান তা ফেরত দিতে বলেছেন। তবে অসহায় মানুষগুলো যতদিন অসহায় অবস্থায় থাকবেন ততদিন তারা এই তাঁবু ব্যবহার করতে পারবেন বলে জানান উপজেলা নির্বাহী অফিসার।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বন্যা ও ভাঙনকবলিত মানুষের জন্য দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর পক্ষ থেকে দেয়া হয়েছে তাঁবু। চিলমারী উপজেলায় এখনো ঘরবাড়ি হারা নিঃস্ব অনেক পরিবার তাঁবুতে বসবাস করছেন। উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিস সূত্রে জানা গেছে, অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে উপজেলায় ১৩০টি তাঁবুু বরাদ্দ দেয়া হয়েছিল। এর মধ্যে ৭০টি বিতরণ করা হয়।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার মো. কোহিনুর রহমান বলেন, বন্যা ও ভাঙন এলাকার মানুষের সুবিধার জন্য সরকারের পক্ষ থেকে তাঁবু দেয়া হয়েছিল তা ফেরত যোগ্য। তবে যারা অসুবিধায় আছেন তারা যতদিন পর্যন্ত ঘর ও থাকার ব্যবস্থা করতে না পারেন তারা তা ব্যবহার করবেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহ মো. শামসুজ্জোহা বলেন, যাদের থাকার স্থান নাই সরকার তাদের জন্য আশ্রয়ণ করছে এবং যাদের জায়গা আছে ঘর নাই সরকার তাদেরও ঘর করে দিচ্ছেন। এ ছাড়াও তাৎক্ষণিক সমস্যার জন্য তাঁবুর ব্যবস্থা করা হচ্ছে তাই চিন্তার কোনো কারণ নাই। তিনি আরো জানান, যারা এখনো তাঁবুর উপর ভরসা করে আছেন তাদের থাকার ব্যবস্থা করাসহ ঘর দেয়া হবে।


এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ইংরেজির পাশাপাশি বাংলায়ও রায় লেখার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

‘জাবি ভিসির দুর্নীতির তথ্য-উপাত্ত যাবে ইউজিসির কাছে’

ভারতীয় মুসলিমদের বিষয়ে বাংলাদেশও উদ্বিগ্ন: পাকিস্তানি প্রেসিডেন্ট

আগামীকাল সারাদেশে বিএনপির বিক্ষোভ

আমাদের ন্যায় বিচার পাওয়ার সুযোগ ছিলো না: প্রধানমন্ত্রী

ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় ছুুরিকাঘাতে যুবক নিহত

অবশেষে হেরে গেলেন ধর্ষিতা!

চট্টগ্রামে আওয়ামী লীগের দু’পক্ষের চেয়ার ছোড়াছুড়ি, মারামারি

চট্টগ্রামে আগুনে পুড়ে যুবক নিহত

কুসুম কুটিরে মারা গেলেন পাবর্তী, দেবর গ্রেপ্তার

মিয়ানমার নৌ বাহিনীর হাতে আটক ১৭ বাংলাদেশি জেলেকে ফেরত

পেট্রোবাংলা ভবনে আগুন, নিয়ন্ত্রণে

মেঘনায় দুই লঞ্চের সংঘর্ষে নিহত ১

নাচ বন্ধ করায় যুবতীকে গুলি, কাতরাচ্ছেন হাসপাতালে (ভিডিও)

অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার পর বিয়ে অস্বীকার আওয়ামী লীগ নেতার

আনোয়ার ইব্রাহিমের বিরুদ্ধে ফের সমকামিতার অভিযোগ!