সন্তানরা ফেলে যাওয়ায়...

প্রণব কর্মকার

ষোলো আনা ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, শুক্রবার

খোরশেদ আলী। বয়স ৭১। স্ত্রীর সঙ্গে থাকেন হাজারিবাগ বস্তিতে। বাড়ি বগুড়া জেলের ধুনুট উপজেলায়। রোগা ছিপছিপে লোকটি দুই ছেলে ও এক মেয়ের জনক। উপার্জনক্ষম ছেলে থাকা সত্ত্বেও দু’মুঠো খাবারের তাগিদে আজ রাজধানীতে সড়কে রিকশা চালাতে হয় তাকে। দিনে দুবেলা রিকশা চালান। কয়েক বছর হলো তিনি এই কাজ করে যাচ্ছেন।
বয়সের ভারে প্রায়শই শরীর খারাপ থাকে তার। যেদিন কাজে বের হতে পারেন না সেদিন খাওয়াটুকুও জোটে না তার। তার সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, বয়স হবার কারণে আয়টাও কম হয়। রিকশার গতি কম হওয়ার কারণে অন্যরা চড়তে চান না তার রিকশায়। এত বৃদ্ধ বয়সে এই কাজ করার কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, খোদায় কপালে রাখছিল তাই করতাছি। আর না কইরা করমুটা কি?




পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Kobir Hossain

২০১৯-০৯-০৬ ০৯:১১:১৩

প্রিয় সাংবাদিক সাহেব,আমি এই লোকটিকে কিছু সাহায্যে করতে চাই,,দয়াকরে কি আপনি যিনি উনার সংবাদ সংগ্রহ করেছেন এবং কথা বলেছেন উনার নাম্বারটা দিবেন প্লিজ,,আমি এই বৃদ্ধ মানুষটির সাথে সরাস‌রি কথা বলতে চাই,,,

আপনার মতামত দিন

ষোলো আনা -এর সর্বাধিক পঠিত